Recent News
দ্বিতীয় টি-২০-তে দুর্দান্ত জয়ে সিরিজে ফিরল বাংলাদেশ

মুক্তিযুদ্ধ ৭১ নিউজ স্পোটর্স ডেস্ক : প্রথম টি-টোয়েন্টিতে হারের পর শক্তভাবে ঘুরে দাঁড়ানোর বার্তা দিয়েছিলেন সদ্য বাংলাদেশের নেতৃত্ব পাওয়া নুরুল হাসান সোহান। কথা রেখেছেন বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক। ব্যাটে-বলের দাপটে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়েকে হেসেখেলে হারিয়েছে বাংলাদেশ। সহজ জয়ে সিরিজেও সমতা ফিরিয়েছে নুরুল হাসান সোহানের দল।

আজ রোববার দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়েকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ। এই জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতা ফিরল। সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে আগামী মঙ্গলবার ফের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে।

হারারের স্পোর্টস ক্লাব মাঠে আগে ব্যাট করে বাংলাদেশকে খুব বড় লক্ষ্য দিতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। জিততে হলে বাংলাদেশকে করতে হতো মাত্র ১৩৬ রান। এই রান তাড়ায় লিটন দাসের হাফসেঞ্চুরিতে ১৫ বল হাতে রেখে জয় তুলে নেয় লাল-সবুজের দল।

এই জয়ে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রেখেছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। দারুণ বোলিংয়ে জিম্বাবুয়েকে একাই নাড়িয়ে দিয়েছেন সৈকত। নিজের কোটার ৪ ওভার বোলিং করে মাত্র ২০ রানের বিনিময়ে ৫টি উইকেট নিয়েছেন তিনি। টি-টোয়েন্টিতে ক্যারিয়ারসেরা বোলিং করে ম্যাচসেরা হয়েছেন এই অলরাউন্ডার।

ব্যাট হাতে হাফসেঞ্চুরি করা লিটন দাস উপহার দিয়েছেন ৩৩ বলে ৫৬ রানের ইনিংস। যাদে ছিল ছয়টি বাউন্ডারি ও দুটি ছক্কা। এ ছাড়া ব্যাট হাতে আফিফ হোসেন করেছেন ৩০ রান। ১৬ রান এসেছে এনামুল হক বিজয়ের ব্যাট থেকে। শান্ত করেছেন ১৯ রান।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে স্কোরবোর্ডে ১৩৫ রান তুলতে পেরেছে জিম্বাবুয়ে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬২ রান করেছেন সিকান্দার রাজা। ৫৩ বলে তাঁর ইনিংসটি সাজানো ছিল চার বাউন্ডারি ও দুই ছক্কা দিয়ে।

এদিন ম্যাচের শুরুতেই ধাক্কা খায় জিম্বাবুয়ে। ইনিংসের প্রথম ওভারেই বাংলাদেশকে সাফল্য এনে দেন সৈকত। বাংলাদেশি স্পিনারের করা অফ স্টাম্পের বেশ বাইরের বল জায়গায় দাঁড়িয়ে সজোরে মারতে গিয়ে উইকেটকিপার নুরুল হাসান সোহানের গ্লাভসে ক্যাচ দিয়ে দেন চাকাভা। শূন্যতে প্রথম উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে।

ওই ওভারের শেষ বলে ফের আঘাত হানেন সৈকত। এবার ফিরিয়ে দেন গেল ম্যাচ জিম্বাবুয়ের জয়ের নায়ক ওয়েসলি মাধাভেরেকে। এটিও সাদামাটা ডেলিভারি ছিল। অফ স্টাম্পের বাইরে ফুল লেংথ ডেলিভারি জায়গায় দাঁড়িয়ে খেলতে গিয়ে কাভারে মেহেদী হাসানের হাতে ক্যাচ দেন মাধাভেরে। ৫ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। মাধাভেরে করেন ৪ রান। নিজের পরের ওভারে ফের উইকেটের দেখা পান সৈকত। এবার শিকার বানান ক্রেইগ আরভীনকে। সৈকতের বলে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ১ রানেই বিদায় নেন স্বাগতিক অধিনায়ক।

প্রথম স্পেলে ৩ উইকেট নেওয়া সৈকত পরের স্পেলে দুই উইকেট নিয়ে পূরণ করেন ফাইফার। নিজের চতুর্থ শিকার বানান শন উইলিয়ামসকে আর পঞ্চম শিকার বানান মিল্টন শুম্বাকে। প্রথমবার ৫ উইকেট নেওয়ার উচ্ছ্বাসে মেতে ওঠেন সৈকত। সেই সঙ্গে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় বাংলাদেশ।

তবে সৈকতের বোলিং কোটা শেষ হলে প্রতিরোধ গড়েন সিকান্দার রাজা। বাকি সময় লড়াই করে জিম্বাবুয়েকে ১৩৫রানের পুঁজি এনে দেন সিকান্দার রাজা। গত ম্যাচেও জিম্বাবুয়ের হয়ে দারুণ ব্যাট করেন তিনি। আজও বিপদে পড়া জিম্বাবুয়েকে বাঁচাতে লড়াই করেন রাজা।

সৈকত ছাড়া বাংলাদেশের হয়ে বল হাতে উইকেটের দেখা পেয়েছেন হাসান মাহমুদ ও মুস্তাফিজুর রহমান। দুজনের পেয়েছেন সমান একটি করে উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

জিম্বাবুয়ে: ২০ ওভারে ১৩৫/৮ (চাকাভা ০, আরভিন ১, মাধেভেরে ৪, রাজা ৬২, উইলিয়ামস ৮, শুম্বা ৩, বার্ল ৩২, জঙ্গুয়ে ১০, মাসাকাদজা ৬, এনগারাভা ০*; মোসাদ্দেক ৪-০-২০-৫, মেহেদী ৩-০-১০-০, মুস্তাফিজ ৪-০-৩০-১, শরিফুল ৪-০-৩৭-০, হাসান ৪-০-২৬-১, আফিফ ১-০-১২-০)।

বাংলাদেশ : ১৭.৩ ওভারে ১৩৬/৩ (লিটন ৫৬, মুনিম ৭, এনামুল ১৬, আফিফ ৩০, শান্ত ১৯ ; মাসাকাদজা ৩-০-২২-০, মাধাভেরে ৩-০-১৮-০, বার্ল ১-০-১২-০, শন উইলিয়ামস ২-০-১৩-১, সিকান্দার ৩-০-১৮-১)।

ফল : ৭ উইকেটে জয়ী বাংলাদেশ।

সিরিজ : ১-১ সমতা।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

News Reporter

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *